দীপশিখা পোদ্দার-এর কবিতা

দীপশিখা পোদ্দার-এর কবিতা

বিষ

বিষ এসে চুপটি করে বসে আছে ঘরে।
ঘরে বইপত্র আছে। পোশাকআসাক খাট বিছানা
কলম ও কাকলি, হ্যাঁ কাকলির মধ্যে আমি বেঁচে থাকি
বিষ জানে, লুকিয়ে ঘুমোই, চারপাশে
অত্যন্ত গোপনে বাজে জীবনের সুর
আমি কলকাকলিত হয়ে ফিরে ফিরে যাই
যেখানে যাবার কথা নয়,
আমাকে আমার করে চিনে নেবে বলে বিষ
ঘাপটি মেরে বসে থাকে, আমি তার চোখের পলক দেখি
দেখি তার বেদনার মতো উড়ে যাওয়া…
জলকেলি দেখি জীবনের
আহা, রঙিন রঙিন সব বুদবুদ
প্রাণান্ত পিপাসা টপকে চলে যায় ঘোর… কার কাছে যায় !
বিষের পলক থেকে আমি সরে সরে যাই
দেখি একটি ফুরিয়ে আসা দিনের কার্নিশে
বসে আছে আধভাঙা চাঁদ …


একটি দুটি কথা

একটি দুটি কথাদের কাছে
মাঝে মাঝে বসে থাকতে ইচ্ছে করে খুব।
ইচ্ছে করে সমস্ত ললিতকলা খুলে রেখে দিই
তাদের পায়ের কাছে। দরজা খোলার আগে
যে বাতাস পায়ে পায়ে এসে ঢুকে যায়
তারপর চরাচর জুড়ে মন ঘুঙুর বাজিয়ে ফেরে
কাছে আসে, দূরে যায়, দূরে বুঝি ঘরবাড়ি থাকে
তাহাদের ! একটি দুটি বিষণ্ণতা কী অবুঝ!
হাত ধরে টানে, দূরে নিয়ে যাবে বলে
আরও দূর থেকে কে যেন মাদল বাজায়,
একটি দুটি কথাদের কাছে তখন লুটিয়ে পড়ে
জীবনের সুফি সংগীত। পাল্লারা খুলে যায়
বন্ধ গাছের। এত আলো থাকে বুঝি
বৃদ্ধ হয়ে যাওয়া আঁধারের !
একটি দুটি কথা ভাঙাচোরা পথকে সারিয়েসুরিয়ে
টেনে নিয়ে চলে

যারা যেতে চায়।

CATEGORIES
TAGS
Share This

COMMENTS

Wordpress (0)